Thursday, November 24, 2011

চলে যাওয়া মানে প্রস্থান নয়, ভুপেন থাকবেন দুটি পাতা একটি কুঁড়িতে কিংবা থমথমে মেঘে

 06 Nov 2011 , somewhereinblog.net
আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন ভুপেন হাজারিকা। মনে আছে সেই ছোট্ট বেলা থেকে তার মানবতাবাদী গানগুলো শুনে কতই না উদ্দিপ্ত হতাম! সকলেই তার গানের সার্বজনীন আবেদনের জন্য তার ভক্ত। সেই কথা আর সুর যার প্রায় সবই ভুপেনের নিজে করা!

আমার একটি প্রস্তাব থাকলো। যারা ভুপেনের গুনমুগ্ধ তারা তার মৃত্যু উপলক্ষ্যে আগামী অন্তত ৩ দিন ভুপেনের ছবি প্রোপিক হিসেবে সামু কিংবা আপনার ফেসবুকে ধারণ করুন।


যারা খবরটি মিস করেছেন তাদের জন্যঃ
উপমহাদেশের প্রখ্যাত সংগীত শিল্পী ভূপেন হাজারিকা আর নেই৷ দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্ট ও কিডনি রোগে ভুগছিলেন তিনি৷ মানুষ মানুষের জন্য, বিস্তীর্ণ দুপারে, আমি এক যাযাবর, সাগর সঙ্গমেসহ বেশ কিছু জনপ্রিয় গানের স্রষ্টা তিনি৷

জয় জয় নবজাত বাংলাদেশ,

জয় জয় মুক্তিবাহিনী

ভারতীয় সৈন্যের সাথে রচিলে

মৈত্রীর কাহিনী৷

বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম নিয়ে এই গানটি গেয়েছিলেন ভূপেন হাজারিকা৷ ভারতবর্ষের প্রখ্যাত সংগীত শিল্পী ভূপেন শনিবার বিকেলে ভারতের মুম্বইয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন৷ মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর৷ গত কয়েকমাস ধরেই নানাবিধ শারীরিক জটিলতায় ভুগছিলেন তিনি৷ দুটি কিডনিই বিকল হয়ে যাওয়ায় মৃত্যুর আগে চার দিন ধরে ডায়ালাইসিস চলে তাঁর৷ কিন্তু শেষ অবধি আর ধকল সইতে পারলেন না এই কিংবদন্তি কণ্ঠশিল্পী৷

জন্ম আসামে

১৯২৬ সালে ভারতের আসামে জন্মগ্রহণ করেন ভূপেন৷ মাত্র ১২ বছর বয়সেই তাঁর গান স্বীকৃতি পায়৷ তখন অসমীয়া ভাষায় নির্মিত একটি চলচ্চিত্রের জন্য গেয়েছিলেন তিনি৷ পরবর্তীতে বাংলা এবং হিন্দি ভাষায় সংগীত পরিবেশন করে উপমহাদেশে নিজের আসন পোক্ত করেন তিনি৷ ভারতীয় চলচ্চিত্র ও সংগীতে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ১৯৭৭ সালে ভারত সরকারের পদ্মশ্রী ও ২০০১ সালে পদ্মভূষণ খেতাব জয় করেন ভূপেন৷

যাযাবর ভূপেন

ভূপেন হাজারিকা একাধারে ছিলেন গায়ক, কবি, সাংবাদিক, অভিনেতা, চলচ্চিত্র নির্মাতা ও লেখক৷ নিজেকে তিনি ‘যাযাবর' ঘোষণা করেছিলেন৷ ১৯৪৬ সালে তিনি বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন৷ এরপর ১৯৫২ সালে যুক্তরাষ্ট্রের কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন এই শিল্পী৷

অসমীয়া থেকে বাংলায় অনূদিত

মানুষ মানুষের জন্য, বিস্তীর্ণ দুপারে, আমি এক যাযাবর, সাগর সঙ্গমে, প্রতিধ্বনি শুনি, দোলা হে দোলাসহ অসংখ্য জনপ্রিয় গানের কারিগর এই শিল্পী৷ বাংলাভাষীদের কাছে ভূপেন প্রবাদতুল্য জনপ্রিয়তা অর্জনে সক্ষম হন৷ তাঁর দরাজ কণ্ঠে গাওয়া গানগুলো সব প্রজন্মের মানুষের হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছে৷ ভূপেন এর অনেক গান অবশ্য মূল অসমীয়া থেকে বাংলায় অনূদিত৷ এই শিল্পীর অধিকাংশ গানই এখন ইউটিউব থেকে শোনা সম্ভব৷

শেষ জীবনে ভারতের হিন্দুত্ববাদী রাজনৈতিক দল বিজেপিতে যোগদান করেন ভূপেন হাজারিকা৷ রাজনীতির মাঠে অবশ্য খানিকটা বিতর্কেও জড়িয়ে পড়েন তিনি৷ তাঁর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিজেপি সভাপতি নীতিন গাডকড়ি৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: হোসাইন আব্দুল হাই